গর্ভপাতের বড়ি ব্যবহারের ক্ষতিকর দিকগুলি এবং জটিলতা


মাইসোপ্রোস্টোল নেেওয়ার পরে কতখানি রক্তক্ষরণ এবং পেশীর খিঁচুনি স্বাভাবিক?

কোনো কোনো মহিলার ক্ষেত্রে পেশীর খিঁচুনি খুব বেশি-অনেক বেশি যন্ত্রণাদায়ক আপনার মাসিক-এর সময়ের পেশীর খিঁচুনি থেকে (যদি আপনার মাসিক-এর সময়ে পেশীর খিঁচুনি হয়ে থাকে) এবন গ রক্তক্ষরণও মাসিক-এর থেকে অনেক বেশি। মাইসোপ্রোস্টোল নেওয়ার পরে প্রথম কয়েক ঘন্টায় আপনার শরীর থেকে পাতিলেবুর সাইজের রক্তের ডেলা বেরোতে থাকতে পারে। অন্যান্য মহিলার ক্ষেত্রে পেশির খিঁচুনি কম এবং রক্তক্ষরণও সাধারণ মাসিক-এর মতোই।

মাইসোপ্রোস্টোল নেওয়ার পরে যদি আমার রক্তক্ষরণ না হয়?

যদি আপনার রক্তক্ষরণ না হয় বা খুব কম রক্তক্ষরণ হয় এবং খুব বেশি যন্ত্রণা(বিশেষ করে বাঁদিকের কাঁধে) হতে থাকে যা আইবুপ্রফেন-এও কমছে না তাহলে ডাক্তারি সাহায্য চান। এটা এক্টোপিক প্রেগ্ন্যান্সির লক্ষণ হতে পারে (জরায়ুর বাইরে গর্ভ)। এটা বিরল হলেও জীবনসংশয় করে তোলে। যদি আপনার চিন্তা থাকে যে গর্ভপাত সফল হয় নি তাহলে আপনি আমাদের www.safe2choose.org - এ সহযোগীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে কোনো প্রশিক্ষিত পরামর্শদাতার সঙ্গে কথা বলতে পারেন ।

যদি আমার খুব বেশি রক্তক্ষরণ হয় গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার পরে?

যদি প্রতি দু ঘন্টায় আপনার দুটি রেগুলার প্যাড পুরোপুরি ভিজে যায় আপনার গর্ভ নিষ্কাশনের পরে, তাহলে ডাক্তারি সাহায্য চান। পুরোপুরি ভিজে যাওয়ার অর্থ প্যাড রক্তে সম্পূর্ণ ভেজা--সামনে এবং পাছনে, এপাশ থেকে ওপাশ এবং এদিক থেকে ওদিক।

গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার পরে যন্ত্রণা হলে আমি কি করব?

আপনি ৩-৪টি (২০০ মি গ্রা) বড়ি নিতে পারেন প্রতি ৬-৮ ঘন্টা অন্তর যন্ত্রণা উপশমের জন্যে। মনে রাখবেন যে আপনি মাইসোপ্রোস্টোল নেওয়ার আগেও আপনি আইবুপ্রফেন নিতে পারেন।

গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার পরেে আমি স্বাভাবিক খাবার খেতে পারি?

মাইসোপ্রোস্টোল গলে যাওয়ার পরে আপনি ইচ্ছেমতো খেতে পারেন। শুকনো খাবার(যেমন কুড়মুড়ে বিস্কুট বা টোস্ট) আপনার বমি বমি ভাব কাটাতে সাহায্য করতে পারে, আর সবুজ শাকসবজি, ডিম, এবং ছাগল ইত্যাদির মাংস খেলে গর্ভপাতের সময়ে যেসব খনিজ আপনার শরীর থেকে বেরিয়ে গেছে সে ক্ষতি পূরিত হবে।

গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার পরে আমি কি স্বাভাবিকভাবে পানীয় নিতে পারি?

মাইসোপ্রোস্টোল গলে যাওয়ার পরে আপনি যে-কোনো পানীয় নিতে পারেন(অ্যালকোহল ছাড়া) ।

গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার সময়ে বা তার পরে আমি কি অ্যালকোহল নিতে পারি?

চিকিৎসা চলাকালীন ওষুধের কার্যকারিতায় যাতে কোনো প্রভাব না পড়ে তার জন্যে অ্যালকোহল না নেওয়া উচিত। অ্যালকোহল কখনো কখনো জরায়ুর রক্তক্ষরণ বাড়াতে পারে, যন্ত্রণা কমানো বা সংক্রামণ এড়ানো ইত্যাদির জন্যে নেওয়া অন্যান্য ওষুধের কার্যকারিতাও কমিয়ে দিতে পারে (যেসকল মহিলা জটিলতার মধ্যে রয়েছেন)। সাধারণত সুপারিশ করা হয় অ্যালকোহল না নিতে যতক্ষণ না আপনি নিশ্চিত করছেন যে গর্ভপাত সম্পূর্ণ হয়েছে এবং আপনি ভালো আছেন।

গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার ফলে ক্ষতিকর দিকগুলি চলে যেতে কতদিন সময় লাগে?

বেশির ভাগ মহিলা ৪-৫ ঘন্টার মধ্যে গর্ভপাত হয়ে যায় এবং ২৪ ঘন্টার কম স ময়ের মধ্যে সুস্থ বোধ করতে শুরু করেন। পরের ৩-৪ সপ্তাহের মধ্যে আপনার মাসিক শুরু হওয়া পর্যন্ত হালকা রক্তক্ষরণ এবং একটু একটু দাগ চলতে থাকে সাধারণত।

মাইসোপ্রোস্টোল নেওয়ার পরে অসুস্থ বোধ হওয়া বা বমি বমি ভাব কি স্বাভাবিক?

পেটের অসুখ, ডায়েরিয়া, জ্বর জ্বর ভাব হওয়া এই সময়ে স্বাভাবিক। বেশির ভাগ মহিলা জানিয়ে থাকেন যে তাঁরা বুঝেছেন যে তাঁদের গর্ভপাত ঘটেছে কারণ রক্তক্ষরণ কমে গিয়ে তাঁরা অনেকটা সুস্থ বোধ করতে শুরু করেন।

গর্ভপাতের বড়ি নেওয়ার পরেও আমি যদি গর্ভবতী থেকে যাই তাহলে কি করা উচিত?

কিছু মহিলার শল্য চিকিৎসার দরকার হতে পারে যদি বড়ি নেওয়ার পরেও তাদের গর্ভ নিষ্কাশিত না হয়। মনে রাখবেন অসম্পূর্ণ গর্ভপাতের জন্যে চিকিৎসা সারা পৃথিবীতে পাওয়া যায়। আপনার দেশে গর্ভপাত আইনত নিয়ন্ত্রিত হলেও এই পরিষেবা আপনি পেতে পারেন।

গর্ভপাতের বড়ি ব্যবহারের ক্ষতিকর দিকগুলি এবং জটিলতা

কোনো কোনো মহিলার ক্ষেত্রে পেশীর খিঁচুনি খুব বেশি-অনেক বেশি যন্ত্রণাদায়ক আপনার মাসিক-এর সময়ের পেশীর খিঁচুনি থেকে (যদি আপনার মাসিক-এর সময়ে পেশীর খিঁচুনি হয়ে থাকে) এবন গ রক্তক্ষরণও মাসিক-এর থেকে অনেক বেশি। মাইসোপ্রোস্টোল নেওয়ার পরে প্রথম কয়েক ঘন্টায় আপনার শরীর থেকে পাতিলেবুর সাইজের রক্তের ডেলা বেরোতে থাকতে পারে। অন্যান্য মহিলার ক্ষেত্রে পেশির খিঁচুনি কম এবং রক্তক্ষরণও সাধারণ মাসিক-এর মতোই।

যদি আপনার রক্তক্ষরণ না হয় বা খুব কম রক্তক্ষরণ হয় এবং খুব বেশি যন্ত্রণা(বিশেষ করে বাঁদিকের কাঁধে) হতে থাকে যা আইবুপ্রফেন-এও কমছে না তাহলে ডাক্তারি সাহায্য চান। এটা এক্টোপিক প্রেগ্ন্যান্সির লক্ষণ হতে পারে (জরায়ুর বাইরে গর্ভ)। এটা বিরল হলেও জীবনসংশয় করে তোলে। যদি আপনার চিন্তা থাকে যে গর্ভপাত সফল হয় নি তাহলে আপনি আমাদের www.safe2choose.org - এ সহযোগীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে কোনো প্রশিক্ষিত পরামর্শদাতার সঙ্গে কথা বলতে পারেন ।

যদি প্রতি দু ঘন্টায় আপনার দুটি রেগুলার প্যাড পুরোপুরি ভিজে যায় আপনার গর্ভ নিষ্কাশনের পরে, তাহলে ডাক্তারি সাহায্য চান। পুরোপুরি ভিজে যাওয়ার অর্থ প্যাড রক্তে সম্পূর্ণ ভেজা--সামনে এবং পাছনে, এপাশ থেকে ওপাশ এবং এদিক থেকে ওদিক।

আপনি ৩-৪টি (২০০ মি গ্রা) বড়ি নিতে পারেন প্রতি ৬-৮ ঘন্টা অন্তর যন্ত্রণা উপশমের জন্যে। মনে রাখবেন যে আপনি মাইসোপ্রোস্টোল নেওয়ার আগেও আপনি আইবুপ্রফেন নিতে পারেন।

মাইসোপ্রোস্টোল গলে যাওয়ার পরে আপনি ইচ্ছেমতো খেতে পারেন। শুকনো খাবার(যেমন কুড়মুড়ে বিস্কুট বা টোস্ট) আপনার বমি বমি ভাব কাটাতে সাহায্য করতে পারে, আর সবুজ শাকসবজি, ডিম, এবং ছাগল ইত্যাদির মাংস খেলে গর্ভপাতের সময়ে যেসব খনিজ আপনার শরীর থেকে বেরিয়ে গেছে সে ক্ষতি পূরিত হবে।

মাইসোপ্রোস্টোল গলে যাওয়ার পরে আপনি যে-কোনো পানীয় নিতে পারেন(অ্যালকোহল ছাড়া) ।

চিকিৎসা চলাকালীন ওষুধের কার্যকারিতায় যাতে কোনো প্রভাব না পড়ে তার জন্যে অ্যালকোহল না নেওয়া উচিত। অ্যালকোহল কখনো কখনো জরায়ুর রক্তক্ষরণ বাড়াতে পারে, যন্ত্রণা কমানো বা সংক্রামণ এড়ানো ইত্যাদির জন্যে নেওয়া অন্যান্য ওষুধের কার্যকারিতাও কমিয়ে দিতে পারে (যেসকল মহিলা জটিলতার মধ্যে রয়েছেন)। সাধারণত সুপারিশ করা হয় অ্যালকোহল না নিতে যতক্ষণ না আপনি নিশ্চিত করছেন যে গর্ভপাত সম্পূর্ণ হয়েছে এবং আপনি ভালো আছেন।

বেশির ভাগ মহিলা ৪-৫ ঘন্টার মধ্যে গর্ভপাত হয়ে যায় এবং ২৪ ঘন্টার কম স ময়ের মধ্যে সুস্থ বোধ করতে শুরু করেন। পরের ৩-৪ সপ্তাহের মধ্যে আপনার মাসিক শুরু হওয়া পর্যন্ত হালকা রক্তক্ষরণ এবং একটু একটু দাগ চলতে থাকে সাধারণত।

পেটের অসুখ, ডায়েরিয়া, জ্বর জ্বর ভাব হওয়া এই সময়ে স্বাভাবিক। বেশির ভাগ মহিলা জানিয়ে থাকেন যে তাঁরা বুঝেছেন যে তাঁদের গর্ভপাত ঘটেছে কারণ রক্তক্ষরণ কমে গিয়ে তাঁরা অনেকটা সুস্থ বোধ করতে শুরু করেন।

কিছু মহিলার শল্য চিকিৎসার দরকার হতে পারে যদি বড়ি নেওয়ার পরেও তাদের গর্ভ নিষ্কাশিত না হয়। মনে রাখবেন অসম্পূর্ণ গর্ভপাতের জন্যে চিকিৎসা সারা পৃথিবীতে পাওয়া যায়। আপনার দেশে গর্ভপাত আইনত নিয়ন্ত্রিত হলেও এই পরিষেবা আপনি পেতে পারেন।

রেফারেন্সগুলি