কারা গর্ভপাতের বড়ি ব্যবহার করতে পারেন?

না, একই সংখ্যক বড়ি নিতে হবে যা আমরা সকলকে সুপারিশ করে থাকি। গবেষণায় দেখা গেছে যে ওষুধের দ্বারা সাফল্য বেশি ভারী ওজনের বা বড়োসড়ো মহিলার ক্ষেত্রে কমে যায় না। আপনার অন্য ডোজ্‌ বা বেশি সংখ্যক বড়ি নেওয়ার দরকার নেই।

আপনাকে ডোজ্‌ বা বড়ির সংখ্যা বদলানোর দরকার দরকার নেই যদি দেখেন যে আপনার গর্ভে যমজ রয়েছে। একই পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে গর্ভে যমজ থাকলেও।

না, প্রত্যেক বারেই গর্ভধারণ এক আলাদা ঘটনা। যদি আপনি আগে কখনো গর্ভপাতের বড়ি ব্যবহার করে থাকেন তাহলেও অবাঞ্ছিত গর্ভ নিষ্কাশনের জন্যে আপনাকে কোনো বেশী ডোজের ওষুধ নিতে হবে না।

যদি আপনার জরায়ুতে কোনো ইন্ট্রাইউটেরিন গর্ভনিরোধক যন্ত্র থাকে(যেমন প্রোজেস্টেরোন আইইউডি পাত), তাহলে আপনাকে অবশ্যই সেটি ডাক্তারি পদ্ধতিতে গর্ভপাতের আগে বার করে ফেলতে হবে।

শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর সময়ে মাইসোপ্রোস্টোল নিলে সেটাতে শিশুর ডায়েরিয়া হতে পারে। এর থেকে রেহাই পাওয়ার জন্যে শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানো শেষ করে মাইসোপ্রোস্টোল নিন, তারপরে ৪ ঘন্টা অপেক্ষা করুন পুনরায় বুকের দুধ খাওয়ানোর আগে।

যদি আপনার এইচআইভি(HIV) থাকে তাহলে নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনার শরীর স্থিতিশীল আছে, আপনার ওই রোগের ওষুধ চলছে এবং অন্যান্য দিক থেকে আপনার স্বাস্থ্য ভালো আছে।

আপনার রক্তাল্পতা (রক্তে লৌহকণিকা কম থাকা) থাকলে একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্রের খোঁজ নিয়ে রাখুন যেখানে যেতে ৩০মিনিটের বেশী সময় লাগবে না যারা দরকার হলে আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

না, যদি আগে আপনার সিজারিয়ান হয়েও থাকে তাহলেও গর্ভাবস্থার গোড়ার দিকে গর্ভপাতের বড়ির ব্যবহার নিরাপদ।

মাইফপ্রিস্টোন এবং জন্মকালীন খুঁত-এর সঙ্গে কোনো যোগ পাওয়া যায় নি। যাই হোক, মাইসোপ্রোস্টোল -এর ক্ষেত্রে জন্মকালীন খুঁত-এর হার সামান্য বেশি। মাইসোপ্রোস্টোল-এর নেওয়ার পরেও গর্ভাবস্থা জারি থাকলে আপনার স্বতস্ফূর্ত মিস্‌ক্যারেজ হয়ে যেতে পারে। যদি আপনার স্বতস্ফূর্ত মিস্‌ক্যারেজ না হয় এবং পুরো সময় গর্ভাবস্থা বহন করে থাকেন, তাহলে শিশুর জন্মকালীন খুঁত-এর ঝুঁকি ১% বেড়ে যায়(১০০ জন শিশুর মধ্যে একজন শিশু)।

না, যদি আপনি জেনে থাকেন যে আপনার এক্টোপিক প্রেগ্‌ন্যান্সি-র ঝুঁকি থাকে তাহলে আপনার পক্ষে গর্ভপাতের বড়ি নেওয়া সুরক্ষিত নয়। কারণ আপনার একবার টিউবাল লাইগেশন বা নল বন্ধ করে বন্ধ্যাকরণ হয়েছিল। সম্ভবত আপনার আগের বার এক্টোপিক প্রেগ্‌ন্যান্সি হয়েছিল বলে এটা করতে হয়েছিল। ফেলোপিয়ান টিউব-এ স্ত্রী ডিম্বাণু নিষিক্ত হয় পুরুষ শুক্রাণু-র সঙ্গে। গর্ভ বৃদ্ধি শুরু হয় এবং টিউব-এর মধ্যে দিয়ে সেটা জরায়ুর দিকে এগোতে থাকে। যদি আপনার টিউব-এ যদি কোনো খুঁত থাকে, প্রাথমিক গর্ভাবস্থা টিউব-এর মধ্যে আটকে যেতে পারে। যেহেতু গর্ভের বৃদ্ধি ঘটতে থাকে, এর ফলে টিউব ভেঙে সেটা বেরিয়ে আসতে পারে। যদি টিউব ভেঙে বেরিয়ে আসে, তাহলে আপনার শরীরের ভেতরে খুব বেশি রক্তক্ষরণ হতে পারে যেটা কিনা জীবন সংশয় করে তোলে। আপনি পুনরায় এক্টোপিক প্রেগ্‌ন্যান্সি-র ঝুঁকিময় অবস্থায় চলে যেতে পারেন। যতক্ষণ পর্যন্ত না কোনো স্বাস্থ্যকর্মী আপনাকে নিশ্চিতভাবে বলেন যে আপনার গর্ভ জরায়ুর ভেতরে আছে ততক্ষ্ণ পর্যন্ত নিজের সিদ্ধান্তে আপনার গর্ভপাতের বড়ি নেওয়া উচিত নয়।

প্রথমত, আপনা জানতে হবে যে বেশির ভাগ মহিলাই নিজেদের এই অবস্থা বুঝতে পারেন না যতক্ষণ না তাঁদের আল্‌ট্রা সাউন্ড করানো হচ্ছে। এক্টোপিক প্রেগ্‌ন্যান্সি কখনো টিকে থাকে না শেষ পর্যন্ত। তাই মহিলারা যদি তাঁদের দেশে গর্ভপাত করানো আইনসম্মত না-ও হয়ে থাকে তাহলেও আইনি পদ্ধতির সহায়তা পেতে পারেন গর্ভ নিষ্কাশনের জন্যে।

References:

HowToUseAbortionPill.org একটি নিবন্ধিত US-ভিত্তিক 501c(3) অলাভজনক সংস্থার সাথে সভ্য রূপে অন্তর্ভুক্ত আছে৷
HowToUseAbortionPill.org তথ্য সম্পর্কিত উদ্দেশ্যে তৈরি কনটেন্ট সরবরাহ করে এবং এটি কোনও মেডিকেল সংস্থার সাথে সভ্য রূপে অন্তর্ভুক্ত নয়৷